Arpita Kundu’s Tanslation of Two Poems by Debaroti Mitra

আমার ব্যর্থতা

ব্যর্থতা একটি মৌচাক।

আমি সেখানে নানান প্রায়শ্চিত্ত থেকে এনে

অশ্রু ভরি।

ভিজে বিদ্যুতের মতো তার ভিতরটা,

বাইরে মৃত করবীর বন।

এ রকম যদি না হত তবে

গ্রীষ্মে পানাপুকুরের কঙ্কালের সঙ্গে

মেলাতে পারতাম না আমার স্মৃতি,

বর্ষাকালের জলস্রোতেই যথেষ্ট হত

আমার নৌকোবিলাস,

শরৎকালে মাটির রথ হত পৃথিবী,

আর শেষ ঋতুতে আমলকী ফলের অভ্যন্তরই

হত বিজ্ঞান।

ব্যর্থতা, এক আচ্ছন্ন কপিশ নীল আরক,

গড়িয়ে আসে আমার মস্তিষ্কে, গর্ভে,

আমৃত্যু পায়ের চিহ্নে।

এই উন্মাদিনীর অবচেতনের মতো এ নীরন্ধ্র,

কোনোক্রমেই ভাঙে না।

“My Failure”

                                                                         – Debaroti Mitra

Failure is a honeycomb.

I keep tears there fetching from

Different penances.

The inside is like moist current,

A grove of dead Oleanders outside.

If it were not been this way

With the skeleton of a summer puddle

I couldn’t have associated my memory,

A rainy brooklet would have

Been enough for my boat-trip,

In autumn, earth would have been a chariot of soil,

And in last season, the kernel of Emblica

Would have been science.

Failure, a drowsy chlorotic-blue essence,

Inclines in my brain, womb,

Footprints till death.

It’s as dense as this madwoman’s subconscious

Doesn’t dispel in any way.

(Translated by Arpita Kundu)

তম

ভ্রূমধ্যে যন্ত্রণা দেখে ভেবেছি ওখানে ফেটে যাব –

মোমবাতির কোলছাড়া সূক্ষ্ম শিখা জন্ম নেব আগুনবিহীন।

সারা দিন চলে গেল, বিকেলও এখন আর নেই,

শুধু চোখে ছাই-ভরা উনুনের লাল।

কাল হবে, পরে হবে ভাবতে ভাবতে

অন্ধকার মাঠেঘাটে নেমে যাই –

কী করি, কী করি !

কোথায় কে?

একা একা মর্ষিত অসুরী যেন পড়ে আছি,

দিব্যজ্ঞান নেই।

কষ বেয়ে নোংরা লালা, চুলে বিন্তি,

ভ্যাপসানো কোমর উলটে পড়ে আছি

ব্যাপক কমঠ।

কতদিন হল আজ প্রাণ নেই, প্রতিধ্বনি নেই।

সাপের গায়ের ঠাণ্ডা আস্তে আস্তে উঠে আসছে কপাল অবধি,

যদি দেহ ভেঙে ফেলি, তবুও নিজের ছায়া সঙ্গে সঙ্গে যাবে।

পচা ফুলপাতা ঢাকা শিবের মতন এই জন্ম

মাঠের বালির গর্তে ডুবে যেতে থাকে।

ঝড় হয় না, জল হয় না –

আকাশের মাথা ফেটে আগুনে মেঘের আঁকশি

তুমি তাকে একতিল টেনে তুললে না।

“Unconscious”

                                    – Debaroti Mitra

Feeling the mid-brow pang thought that I would burst there –

A fine flame leaving the candle I’ll be born without fire.

The day is gone, even the afternoon is no more,

Only in the eyes, there’s the red of cinder-full oven.

It’ll be tomorrow, it’ll be later, thinking thus

I get down to anywhere in the dark field –

What shall I do, what shall I do!

Where’s anyone?

I’m lying alone like a forgiven giantess,

Having no spiritual knowledge.

Foul slaver coming down the jaw, matted hair,

Turning the sweltering waist I lie

A huge turtle.

‘Tis been long since there’s no life, no reverberation.

A snake-skin chill is gradually coming up to forehead,

If I dismantle the body, still the shadow will follow me.

This birth, like Shiva covered with rotten flowers

Keeps sinking inside the sand-hole in the field.

No storm emerges, no rain–

Breaking the sky’s head, the cloud hooks up the fire

You didn’t pull her up even a bit.

(Translated by Arpita Kundu)

Arpita Kundu won the Krittibash puraskar for her debut anthology Gangeyo Yamunar Teerey. She also won the Shakti Chattopadhyay puraskar in 2019. Apart from being a poet she is also widely admired for being a wonderful teacher who is humble, erudite and humorous at the same time.

Debaroti Mitra is a much more senior figure who won the Krittibash puraskar almost five decades ago and has also been the recipient of Ananda puraskar and various such other awards. She has authored several anthologies of poems and prose.

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s